লেখা আহবান
প্রিয় লেখক বন্ধু, আপনার লেখা সবচেয়ে সুন্দর উপন্যাস, সায়েন্স ফিকশন, ভ্রমণকাহিনী, ফিচার, স্বাস্থ্য কথা ইত্যাদি পাঠিয়ে দিন এই মেইলে– noborongpotrika@gmail.com

হেমন্তের ছোয়া

মহিব্বুল্লাহ আরাফী কোকিল টিয়া ময়না শালিক মধুর সুরে ডাকে বেশ, হেমন্ত এলো নতুন রূপে সাঝে আমার সোনাদেশ। কৃষক মাঠে কাস্তে হাতে তাদের মুখে মায়াহাসি, শিশির ঝরে ঘাসের ডগায় হেমন্ত তোমায় সমস্ত লেখা পড়ুন

গরম

জিল্লুর রহমান পাটোয়ারী শীত এসেছে যায়না গরম, খুকির পায়ে খরম- তুলতুলে গা ঝলসে গেছে, গরমের নাই শরম। গরমটার নাই শরম শীতে, লজ্জাটা নাই মনে- শীতের সময গরম কেন! সেটাই ভাবে সমস্ত লেখা পড়ুন

আল্লাহর গুণকীর্তন

মুঃ ফখরুল শাহিন সাগর নদী পাহাড় বন আর পাখি-মানুষ সব, তোমার নামেই অবিরত গাইছে কলরব। দৃষ্টি আমার উদাস করে যেদিক ফিরে চাই, সর্বদিকে তোমার সৃজন তোমার দেখা পাই। জীবনপথে চলতে সমস্ত লেখা পড়ুন

শরতের ছবি

নাহিদ নজরুল শরতকালে ভোর সকালে শিশির ঝরে দূর্বাঘাসে নদী-নলে, খাল ও বিলে খিলখিলিয়ে শাপলা হাসে উদাস হাওয়ায় কাশফুলেরা সারাবেলা দোল খেয়ে যায় বৃষ্টিছোঁয়া লাগলে গায়ে মিষ্টি হাসে সজীবতায় শিউলি ফুলের সমস্ত লেখা পড়ুন

গানের পাখি

এরশাদ জাহান ভরদুপুরে শেওড়া ঝোপের ফাঁকে খোকন বলে কে ওখানে ডাকে ডাক শুনে যে মন থাকে না ঘরে ডাক যেন নয় মুখে মধু ঝরে। ঠিক তখনি বলল পাখি ডেকে আমরা সমস্ত লেখা পড়ুন

শরতের ছড়া

জাকারিয়া আল হোসাইন আষাঢ়ের পর শ্রাবণ শেষে শরৎ এলো হেসে আকাশ পানে চেয়ে দেখি মেঘেরা যায় ভেসে। শরৎ যেন আকাশ পানে শুভ্র মেঘের ভেলা সাদা-কালো মেঘের ডোরে মন মাতানো খেলা। সমস্ত লেখা পড়ুন

আমাদের গ্রাম

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বাড়ি আমার গছিডাঙ্গা ছোট্ট বিলের ধারে, সবুজমাখা আমাদের গ্রাম সবার যে মন কাড়ে। ডানা মেলে কত্তো পাখি উড়ে ঝাঁকে ঝাঁকে, ঘরে থেকে দেখা যে যায় ঘুরে বাঁকে সমস্ত লেখা পড়ুন

বাংলাদেশ

আরিফ হোসেন সবুজ পাখিদের গান শুনে প্রভাতীরা হাসে, কুকিলের কুহুতানে মনে সুর ভাসে। সাগরের বুকে বসে মৎস্যের মেলা, বাতাসের মাঝে একি সুর করে খেলা। কৃষকের মাঠে মাঠে সোনাধান ফলে, পড়ে সমস্ত লেখা পড়ুন

নবান্ন উৎসব

তাহমিদ আল হাসান বাতাসেতে হেলে পরে পাকা পাকা ধান কৃষকের হাসিমুখ শিহরিত প্রান। রোদে পুড়ে ঘামে ভিজে করে ধান চাষ পাকা ধান কেটে নিবে মনে এই আশ। হেমন্ত এলে পরে সমস্ত লেখা পড়ুন

মহানুভবতা

মোহাম্মদ শেখ শরীফ ইমাম আবু হানিফার পাড়া-প্রতিবেশীদের মধ্যে একজন দিনমজুর বাস করতো। দিনের বেলায় সে নিজের কুঁড়েঘরে বসে নানা রকম কুটিরশিল্পের কাজ করতো। অশালীন গান গাইতো ও প্রলাপ বকতো। তার সমস্ত লেখা পড়ুন

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮-২০১৯ নবরঙ
Design BY NewsTheme